দেশের এমপিওভুক্ত বেসরকারি স্কুল কলেজের গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান বিষয়ের সহকারী শিক্ষক ও গ্রন্থাগার প্রভাষক পদে নিয়োগ সুপারিশের দায়িত্ব পেল এনটিআরসিএ। বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএর) মধ্যেমে এ পদগুলোর নিয়োগ সুপারিশ করার নির্দেশনা জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

সোমবার (৩১ মে) এ নির্দেশনা আদেশ জারি করেছে মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ। তবে, ৩১ মে আদেশ জারির আগে এসব পদে নিয়োগে যাদের পরীক্ষা সম্পন্ন হয়ে প্রার্থী চূড়ান্ত হয়েছে তারা নিয়োগ ও এমপিওভুক্ত হতে পারবেন। মন্ত্রণালয় বলছে, নতুন করে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ম্যানেজিং কমিটি বা গভর্নিং বডির মাধ্যমে এ পদগুলোতে নিয়োগ দিলে তা অবৈধ বলে বিবেচিত হবে।

বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (স্কুল ও কলেজ) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০২১ অনুসারে ‘সহকারী শিক্ষক (গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান)’ (পূর্বের পদ ‘সহকারী গ্রন্থাগারিক-ক্যাটালগার’) এবং ‘গ্রন্থাগার প্রভাষক’ (পূর্বের পদ গ্রন্থাগারিক) নিয়োগের ক্ষেত্রে অন্যান্য এন্ট্রি লেভেলের শিক্ষকের মত বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) মাধ্যমে নিবন্ধন পরীক্ষা গ্রহণ ও উত্তীর্ণদের সনদ দেয়াসহ যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চাহিদার অনুকূলে নিয়োগ সুপারিশ করতে হবে।

আদেশে আরও বলা হয়েছে, ১৭তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার অংশ হিসেবে এ ২টি পদে এনটিআরসিএ সিলেবাস প্রণয়নসহ শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে।

মন্ত্রণালয় বলছে, এ আদেশ জারির পর কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটি বা গভর্নিংবডি বা এড-হক কমিটি কর্তৃক এ পদগুলোতেনিয়োগ প্রদান করা যাবে না। এ আদেশ জারির পর এসব পদে ম্যানেজিং কমিটি বা গভর্নিং বডির মাধ্যমে নিয়োগ দেয়া হলে তা অবৈধ নিয়োগ বলে বিবেচিত হবে এবং তারা কোনোভাবেই এমপিওভুক্তির আওতায় আসবে না।

যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদনক্রমে এ আদেশ জারি করা হয়েছে এবং এটি অবিলম্বে কার্যকর হবে বলেও আদেশে উল্লেখ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

তবে ৩১ মের আগে এসব পদে নিয়োগে যাদের প্রার্থী চূড়ান্ত হয়ে গেছে তাদের নিয়োগ হবে ও তারা আগের মত এমপিওভুক্ত হতে পারবেন।

অনেক প্রতিষ্ঠান এসব পদে নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছেন। তাদের নিয়োগের বিষয়ে জানতে চাইলে অতিরিক্ত সচিব আরও বলেন, করোনার মধ্যে যারা নীতিমালা জারির পর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছেন তারা কি কারণে নিয়োগ দিতে চাচ্ছেন তা বোঝাই যাচ্ছে। তবে, যারা  পরীক্ষা নিয়ে ও ফল প্রকাশ করে প্রার্থী চূড়ান্ত করে ফেলেছেন, সেসব প্রার্থী এমপিওভুক্ত হতে পারবেন।