নারীরা পিছিয়ে থাকলে দেশের উন্নয়ন হবেনা। তাই দেশের সকল উন্নয়ন ক্ষেত্রে নারীদের সহযাত্রী হওয়ার আহবান জানান ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ।

সোমবার নারী দিবসে নারী সমাবেশের আলোচনা সভায় আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনাল সাবেক প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে নারীদের সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারীদের মুল্যায়িত করছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আরও বলেন বিশ্বের উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে পুরুষের পাশাপাশি নারীরা সমঅধিকার প্রতিষ্ঠিত করার লড়াইয়ে অগ্রণী ভুমিকা পালন করেছে।

তাই ঐসমস্ত দেশ উন্নয়নশীল। জলঢাকা পাইলট বালিকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নারী দিবসের নারী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কথাগুলো বলেন তিনি। সমাবেশে নতুন জলঢাকা আন্দোলনের ডাক দেন তিনি। তিনি বলেন, জলঢাকায় জনসংখ্যার অর্ধেক নারী। তাই নারীদের আমরা পিছিয়ে ফেলে রাখতে চাইনা। আমি আপনাদেরকে নয়া জলঢাকা উপহার দিতে চাই। তার জন্য আপনাদেরকে আমার প্রয়োজন। একটি পরিবারে যখন নারীর মুখে হাসি থাকে সেই পরিবারে সূর্যের আলো খেলা করে। তুরিন আফরোজ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা করোনাকে বিজয় করেছি।

তাই আমাদের পক্ষে আগামীকে বদলে ফেলা মোটেই অসম্ভব নয়। ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের আয়োজনে মুক্তিযুদ্ধে নিহত শহীদ পরিবারের সদস্য জায়া বোদন শ্বরী শীলের সভাপতিত্বে রাখেন ইউএনও মাহবুব হাসান, সহকারী কমিশনার সিফাত মো, ইশতিয়াক ভুঁইঞা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রেজওয়ানুল কবীর সজিব, ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের সম্বন্বয়ক এনামুল হক প্রমূখ। এসময় সমাবেশে কয়েক হাজার নারী উপস্থিত ছিলেন।

তুরিন আফরোজ বলেন, নারী অধিকার প্রতিষ্ঠায় স্থানীয় ভাবে তার গড়া প্রতিষ্ঠান ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশন কাজ করছেন। বিভিন্ন প্রশিক্ষণ দিয়ে কর্মক্ষেত্রে নারীদের স্বাবলম্বী করছে তার প্রতিষ্ঠান। পরে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী পৌরশহর প্রদক্ষিণ শেষে করোনা ভ্যাকসিন কার্যক্রম নারীদের উদ্বুদ্ধ করতে ফ্রি রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম পরিচালনা করেন ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ।

এদিকে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে চাঁদমনি কন্যা শিশুদের অনাথ আশ্রমের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক পিজিরুল আলম দুলালের নেতৃত্বে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহর প্রদক্ষিণ করে।