সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস, রুখে দাড়াও বাংলাদেশ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে দেশের বিভিন্ন স্থানে হিন্দু সম্প্রদায়ের মূর্তি ভাঙচুর, বাড়িঘড়ে অগ্নিসংযোগ ও হামলার প্রতিবাদে নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলায় শান্তি ও সম্প্রীতি র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে এ র‌্যালী এবং সমাবেশ  অনুষ্ঠিত হয়।
মঙ্গলবার  সকালে উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে  উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ছাত্রলীগসহ সকল অঙ্গ সংগঠনের প্রায় এক হাজার নেতাকর্মীরা উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে একত্রিত হয়ে সেখান থেকে শান্তি ও সম্প্রীতি র‌্যালী বের  হয়ে উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে বাস্ট্যান্ড নৌকা চত্বরে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন।
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি  শহীদুজ্জামান সরকার  এমপি। উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক চৌধুরী,সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল গাফ্ফার।এ সময় উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র রেজাউল কবির চৌধুরী,উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য  আবুল কালাম আজাদ, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য ফাতেমা জিন্না ঝর্ণা, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আহাদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খাদিজাতুল কোবরা মুক্তা, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল আলম বেন্টু, সাধারন সম্পাদক মিলটন উদ্দীন,  উপজেলা  ছাত্রলীগের সভাপতি বদিউজ্জামান বিলাশ, সাধারণ সম্পাদক তাসরিফ হোসেন সম্পদ  প্রমূখ।
এ সময় বক্তারা বলেন, আমরা হিন্দু-মুসলিম ভাই ভাই। এই দেশ সৌহার্দ্য সম্প্রীতির দেশ, ধর্ম নিরপেক্ষতার দেশ। এখানে যে যার ধর্ম নির্বিঘ্নে পালন করবেন।কিন্তু জামাত-বিএনপির দোসররা দেশের বিভিন্ন স্থানে হিন্দু সম্প্রদায়ের মূর্তি ভাঙচুর, বাড়িঘড়ে অগ্নিসংযোগ ও হামলা করেছে। দেশের যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সব সময় প্রস্তুত আছে। অতিসত্বর সন্ত্রাসীদের শনাক্ত করে আইনের আওতায়  এনে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানান বক্তারা।
শেয়ার করুনঃ