নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার ৪ নং পিপরুল ইউনিয়নের সেনভাগ গ্রামের মনতাজ উদ্দিনের ছেলে কামরুল ইসলামের (৩০) সাথে বিয়ের দাবিতে তার বাড়িতে অবস্থান করছে সদর উপজেলার পূর্ব হাগুরিয়া গ্রামের আবুল কালামের মেয়ে মোছাঃ সেলিনা আক্তার (২৬)।

মঙ্গলবার (১৩এপ্রিল) সকালে কামরুল ইসলামের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেন সেলিনা খাতুন। এ সময় তাকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ করে তিনি বলেন, চার বছর যাবত তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক। তাকে বিয়ের পলোভন দেখিয়ে নানাভাবে ব্যবহার করে বিয়ে করতে না চাইলে সে উপায় না পেয়ে বিয়ের দাবি নিয়ে আসে। কিন্তু তাকে কামরুল ইসলামের ভাই- বোন ও ভাবি মারধর করে এবং জখম বাড়ি থেকে বের করে দেয়।

এবিষয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান কলিমউদ্দিন জানান, দুই পক্ষের সাথে আলোচনা করে এর সুষ্ঠ সমাধানের জন্য আগামী ১৭ তারিখ শনিবার সবাইকে নিয়ে বসা হবে।