কোভিট-১৯ (করোনা) এ থেমে না থেকে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ নিশ্চিত করে সীমিত আকারে সারাদেশে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজনের পরামর্শ দিয়েছে একাদশ জাতীয় সংসদের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি।

১৬ সেপ্টেম্বর (বুধবার) সংসদ ভবনে একাদশ জাতীয় সংসদের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১০ম বৈঠকে এ পরামর্শ দেয়া হয়। একইসঙ্গে দেশের প্রতুস্থলগুলোতেও পরিদর্শনেরও ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়। বৈঠক শেষে জাতীয় সংসদ সচিবালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

স্থায়ী কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেন (রিমি) এর সভাপতিত্বে বৈঠকে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, কাজী কেরামত আলী, অসীম কুমার উকিল, সুবর্ণা মুস্তাফা এবং সেলিনা ইসলাম বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।

বৈঠকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিব বর্ষ’ উপলক্ষে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক গৃহীত ও সম্পাদিত কার্যক্রমের উপর আলোচনা করা হয়।

‘মুজিব বর্ষ’ উপলক্ষে বাংলা একাডেমি বঙ্গবন্ধুকে উৎসর্গ করে ১০০টি গ্রন্থ প্রণয়ন ও প্রকাশের কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে বলে উল্লেখ করা হয়। এছাড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে জাতির পিতার ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস ২০২০ পালন উপলক্ষে সারাদেশে অনলাইন ভিত্তিক সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে বলে বৈঠকে জানানো হয়।

পুতুলনাট্য শিল্পের গৌরবময় অর্জনে বিশেষ উৎসাহ ও উদ্দীপনা সৃষ্টিতে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি কর্তৃক বাংলাদেশের সকল পুতুলনাট্য দলের ও শিল্পীদের উন্নয়নকল্পে বিভিন্ন পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে বলে বৈঠকে উল্লেখ করা হয়। এছাড়া বেসরকারি গ্রন্থাগারসমূহের রক্ষণাবেক্ষণ খাতে অনুদান বৃদ্ধিপূর্বক লাইব্রেরি পরিচালনায় আগ্রহী ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়োজিত করে তাদেরকে বার্ষিক বিশেষ সম্মানী প্রদানের বিষয়ে কর্মপরিকল্পনা গ্রহণের কার্যক্রম মন্ত্রণালয়ে চলমান রয়েছে বলে কমিটিকে অবহিত করা হয়।

সভায় ‘মুজিব বর্ষ’ পালনের কর্মসূচিতে সকলকে সচেষ্ট হওয়ার আহবান জানিয়ে এ বিষয়ে গ্রন্থ প্রকাশ এবং নাটক মঞ্চস্থ করার ক্ষেত্রে যেন ইতিহাস বিকৃতি না ঘটে সেদিকে লক্ষ্য রেখে প্রাসঙ্গিক ও মানসম্পন্ন পান্ডুলিপি গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

এর আগে বৈঠকের শুরুতে বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯ এ প্রাণ হারানো সকলের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।

এ সময় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলা একাডেমি, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি, আর্কাইভ ও গ্রন্থাগার, বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর, গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তর ও প্রতুতত্ত্ব অধিদপ্তরের মহাপরিচালকগণ এবং বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।