সারাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জমি বেহাত হওয়া ঠেকানোর উদ্যোগ নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর ও শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের মাধ্যমে কেন্দ্রীয়ভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জমিসহ সব স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির তথ্য বা তালিকা সংরক্ষণের অনুশাসন জারি করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ। একই সাথে জরুরিভিত্তিতে স্ব-স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নামীয় জমি নামজারি-জমাখারিজসহ হালনাগাদ ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ করে রেজিস্ট্রার সংরক্ষণের জন্য সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) আদেশ জারি করা হয়েছে।

তাই, স্ব-স্ব প্রতিষ্ঠানের জমি পরিমান, বিবরণ, খতিয়ান, নামজারি ও জমাখারিজ, ভূমি উন্নয়ন করের দাখিলা, জমির দলিল ও বাস্তব দখলের কাগজপত্র হালনাগাদ করে একটি ফাইল সংরক্ষণ করতে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরকে বলেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। 

একইসাথে জটিলতা এড়াতে জরুরিভিত্তিতে স্ব-স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নামীয় জমি নামজারি ও জমা খারিজসহ হালনাগাদ ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ করে একটি রেজিস্ট্রার সংরক্ষণের জন্য সব প্রতিষ্ঠান প্রধানকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। 

আর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জমিসহ সব স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির তথ্য বা তালিকা মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর ও শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্তৃক সংরক্ষণে অনুশাসন দেয়া হয়েছে।