বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে আলিম পাস করা শিক্ষার্থীরা ফরম পূরণের সময় জমা দেয়া অর্থের কিছু অংশ ফেরত পাবেন। যেহেতু পরীক্ষা হয়নি তাই কিছু টাকা ফেরত দেয়া হবে।

গত বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারী) বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক এ আদেশ সংক্রান্ত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায় যে, করোনা মহামারির কারণে পরীক্ষার্থীদের উত্তরপত্র মূল্যায়ন বাবদ ধার্যকৃত অর্থ এবং ব্যবহারিক ও কেন্দ্র ফি বাবদ আদায়কৃত অর্থের অব্যয়িত অংশ আন্ত:শিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক উপ-কমিটির ১৫৮তম সভায় ফেরত প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় এবং বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব কমিটি’র ৫২৯ তম সভায় অনুমোদিত হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানা যায় যে, ২০২০ সালের আলিম পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য যে সকল পরীক্ষার্ধী ফরম পূরণ করেছিলো তাদের প্রবেশ পত্রে উল্লেখিত প্রতিটি পত্রের জন্য বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত ফি হতে প্রতি (তত্ত্বীয়) ৩০ টাকা করে এবং ব্যবহারিক বিষয়ের ক্ষেত্রে পত্র প্রতি আরও ১০ টাকা করে ফেরত প্রদান করা হবে।

আরও জানা যায় বোর্ড কর্তৃক ফেরত প্রদানের অর্থ সংশ্লিষ্ট পরীক্ষার্থীদের নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রেরণ করা হবে। পরীক্ষার্থীরা স্ব-স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে অব্যয়িটা অর্থ গ্রহণ করবে। ২০২০ সালের আলিম পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের জন্য যে সকল পরীক্ষার্থী ফরম পূরণ করেছিলো তাদের কেন্দ্র ফি হতে পরীক্ষার্থী প্রতি ২০০ টাকা করে এবং আইসিটি বিষয়ের পরীক্ষার্থীদের খ্ষেত্রে অতিরিক্ত আরও ২৫ টাকা করে ফেরত প্রদান করা হবে। এছাড়াও প্রবেশ পত্রে উল্লেখিত (আইসিটি ব্যতিত) সকল ব্যবহারিক বিষয়ের ক্ষেত্রে পত্র প্রতি আরও অতিরিক্ত ৪৫ টাকা ফেরত প্রদান করা হবে। পরীক্ষার্থী কেন্দ্র ফি বাবদ অব্যয়িত উক্ত অর্থ তার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হতে গ্রহণ করবে।

সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কেন্দ্র ফি বাবদ আদায়কৃত অর্থের ১০ শতাংশ এবং আইসিটি বিষয়ের জন্য আদায়কৃত ফি থেকে পরীক্ষার্থী প্রতি ২০ টাকা ফরম পূরণ ও আনুষাঙ্গিক কাজের ব্যয় নির্বাহ করবে।

২০২০ সালের আলিম পরীক্ষায় প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরীক্ষার্থী প্রতি সংশ্লিষ্ট পরীক্ষা কেন্দ্রকে ১৬ টাকা হারে প্রদান করবে। কেন্দ্র উক্ত অর্থ পরীক্ষার গোপনীয় কাগজপত্র পরিবহন ও বোর্ডে জমাদান, সংরক্ষণ এবং প্রশাসনিক ব্যয় নির্বাহ করবে।