সারাদেশের মাদরাসার ইবতেদায়ি প্রধানদের সংশোধিত এমপিও নীতিমালা অনুসারে ১১তম গ্রেডে বেতন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তাদের ১৫তম গ্রেডের পরিবর্তে ১১তম গ্রেডে বেতন দেয়ার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তরকে বলা হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে এ নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

জানা গেছে, মাদরাসার ইবতেদায়ি প্রধানদের সংশোধিত এমপিও নীতিমালা অনুসারে এমপিও নীতিমালা অনুসারে বর্ধিত গ্রেডে বেতন পাচ্ছেন না। নীতিমালায় ১১তম গ্রেডে বেতনের কথা বলা হলেও ১৫ গ্রেডে বেতন পেয়ে তারা বঞ্চিত হচ্ছেন। আড়াই বছর আগে জারি হওয়া এমপিও নীতিমালায় তাদের ১১তম গ্রেডে বেতন দেয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়। নীতিমালা অনুসারে শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডে বেতন দেয়ার আদেশ জারি হয় ১ বছর আগে। তবুও তা বাস্তবায়ন না হয়নি। পরে, মাদরাসার এমপিও নীতিমালা সংশোধন করা হয়। গত ২৩ নভেম্বর মাদরাসার সংশোধিত এমপিও নীতিমালা জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এরপরও ইবতেদায়ি প্রধানদের বেতন জটিলতা নিরসন হচ্ছিল না।

কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের জারি করা আদেশে বলা হয়েছে, মাদরাসার ইবতেদায়ি প্রধানদের ১৫ গ্রেডের পরিবর্তে ১১ গ্রেডে এমপিও দেয়ার বিষয়ে মাদরাসার সংশোধিত এমপিও নীতিমালা অনুসারে পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

আরও জানা গেছে, ইবতেদায়ি প্রধানদের বেতন ১১তম গ্রেডে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল আড়াই বছর আগে। ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের জুলাই মাসে জারি করা মাদরাসার এমপিও নীতিমালায় ইবতেদায়ি প্রধানদের ১১তম গ্রেডে বেতন দেয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। ইবতেদায়ি প্রধানদের ১১তম গ্রেডে বেতন দেয়ার আদেশ জারি হয়েছিল ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের ২ জানুয়ারি। কিন্তু ২০২১ খ্রিষ্টাব্দের ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি এসেও ইবতেদায়ি প্রধানরা ১১তম গ্রেডে বেতন পাচ্ছেন না। নানা অজুহাতে ইবতেদায়ি প্রধানদের ১১তম গ্রেডে বেতন দেয়া হচ্ছিল না। 

সর্বশেষ ২০২০ খ্রিষ্টাব্দে ইবতেদায়ি প্রধানদের ১১ গ্রেডে বেতন নীতিমালা জারির দিন হতে বকেয়া দেয়া হবে কি না তার স্পষ্টিকরণ কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের কাছে চায় অধিদপ্তর। একইসাথে মাদরাসা শিক্ষকদের উচ্চতর গ্রেড দেয়ার বিষয়ে নির্দেশনা চাওয়া হয়। ইতোমধ্যে মাদরাসা শিক্ষকদের উচ্চতর গ্রেডের আবেদন গ্রহণ শুরু হলেও ইবতেদায়ি প্রধানদের আবেদন নেয়া হচ্ছিল না। এ পরিস্থিতিতে ইবতেদায়ি প্রধানদের ১১তম গ্রেডে বেতন দেয়ার ব্যবস্থা নিতে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তরকে নির্দেশনা দিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়।