নাটোরের নলডাঙ্গায় ৩ বছরের বকেয়া সম্মানী ভাতা চাওয়ায় ইউপি সদস্যদের ভয়ভীতি ও হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন দেওয়ানের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে নাটোর জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত আভিযোগ করেছে মাধনগর ইউপির ১০ জন সদস্য।

তারা লিখিত অভিযোগে বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্যদের জন্য সরকার মাসিক আট হাজার টাকা সম্মানী ভাতা করেছে। এর মধ্যে সরকারিভাবে তিন হাজার ৬০০ টাকা এবং ইউনিয়ন পরিষদের তহবিল থেকে চার হাজার ৪০০ টাকা পরিশোধের নিয়ম রয়েছে। সরকারিভাবে তিন হাজার ৬০০ টাকা প্রতি মাসে তারা পেয়েছেন। মাধনগর ইউনিয়ন পরিষদে ২০১৬ সালে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

নির্বাচনের পর থেকে এ পর্যন্ত মাধনগর ইউনিয়ন পরিষদের তহবিল থেকে ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন দেওয়ান বকেয়া ৫ বছরের সম্মানি ভাতা উত্তোলন করলেও সাধারণ সদস্যদের ৩ বছরের সম্মানি ভাতা বকেয়া রাখা হয়েছে । ইউপি সদস্যরা এ বকেয়া সম্মানি ভাতা চাইলে ক্যাডার বাহিনী দিয়ে ভয়ভীতি ও হুমকি দেওয়া হয়। এর প্রতিকার চেয়ে গত বৃস্পতিবার নাটোর জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই ইউনিয়নের ১০ জন সদস্য।

এ ব্যাপারে মাধনগর ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন দেওয়ান ভয়ভীতি ও হুমকি দেওয়ার বিষয় অস্বীকার করে জানান, মাধনগর ইউনিয়ন পরিষদে করের টাকা বকেয়া পড়ে রয়েছে। তাই তাদের বকেয়া সম্মানি ভাতা পরিশোধ করা সম্ভব হয়নি। তবে চেয়ারম্যান নিজের ৫ বছরের সম্মানি ভাতা তুলে নেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন।